" crossorigin="anonymous"> ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা Islam is good and wonderful 2023 - Sukher Disha...,ফেরেশতা তাকে একটি গর্ভবতী গাভী দান করলেন। এবং আল্লাহ পাক এতেই তোমার বরকত দান করবেন এই বলে তিনি ওখান থেকে চলে গেলেন।

ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা Islam is good and wonderful 2023

আল্লাহর পথে দানের সুফল ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা । নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন একদা এক লোক কোন এক গভীর বনের বেড়াতে গিয়েছিলেন।

ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা Islam is good and wonderful 2023

ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা ।আল্লাহর পথে দানের সুফল। নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন একদা এক লোক কোন এক গভীর বনের বেড়াতে গিয়েছিলেন। তিনি হঠাত এক টুকরো মেঘ থেকে অদৃশ্য আওয়াজ শুনতে পেলেন যে অমুক ব্যক্তির বাগানে পানি বর্ষণ কর। আর ঠিক তখনি একখন্ড মেঘ এসে বাগানের উপর স্থির হয়ে প্রচুর বৃষ্টি বর্ষণ করে বাগান ভরিয়ে দিল। বৃষ্টির পানি ড্রেন বা নালা দিয়ে বয়ে চলল , এবং ওই ব্যক্তি পানির স্রোত কোথায় যায় তা দেখার জন্য পানির স্রোতের অভিমুখে অগ্রসর হতে থাকলেন। কিছুক্ষণ যাওয়ার পর সে দেখতে পেলেন এক ব্যক্তি কোদাল দিয়ে জমির আইল বেঁধে পানি নিজের বাগানে আটকে রাখছে। লোকটি দেখে অবাক হলেন এবং জমির মালিকের নাম জিজ্ঞাসা করল।

এক আশ্চর্যের ব্যাপার মেঘ থেকে যে নাম শুনেছিলেন এবং সেই ব্যক্তি ওই একই নাম উচ্চারণ করল। এবার বাগানের মালিক নাম তার নাম জিজ্ঞাসা করার কারণ জানতে চাইলেন। লোকটি বলতে থাকলো ভাই যে মেঘ হতে পানি বর্ষণ করে এই জমিতে পৌঁছালো সেই মেঘ থেকে এই আওয়াজ শুনতে পেয়েছি যে আপনার নাম করে বলছে অমুকের বাগানে পানি বর্ষণ করো। এর জন্য আমি আপনার নাম জিজ্ঞাসা করলাম। এখন আমি জানতে চাইছি আপনি এমন কি কাজ করেন যে আপনি আল্লাহ পাকের এত প্রিয় বান্দা হলেন। এবার বাগানের মালিক জবাব দিলেন যা কিছু আল্লাহর পক্ষ থেকে করা হয় তা তো বলা ঠিক নয় তথাপি আপনি অনুরোধ করছেন তাই বলছি।

এ বাগানে যত ফসল উতপন্ন হয় সেটাকে ৩ ভাগ করে এক ভাগ আল্লাহর পথে খরচ করি অবশিষ্ট দু অংশের এক অংশ নিজের সংসারে ব্যয় করি এবং অপরংশ বাগানের কাজে লাগাই । এই কাজ থেকে আমরা সুস্পষ্টভাবেই এই শিক্ষা পায় যে আল্লাহকে যে কাজে শরীক রাখা হয় সে কাজের সুষ্ঠু সমাধানের জন্য আল্লাহপাক এর কাছ থেকে এমনভাবে সাহায্য আসে যা সে জানতেও পারেনা।

by google image

এরকম আরো কয়েকটি ঘটনা

রাসুল সাঃ এরশাদ করেন বনি ইসরাইলের তিন ব্যক্তি ছিলেন, যাদের মধ্যে একজন কুষ্ঠ রোগী ছিলেন দ্বিতীয় জনের মাথায় টাক এবং তৃতীয় জন ছিলেন অন্ধ। একদা আল্লাহপাক এ তিন ব্যক্তিকে পরীক্ষা করার জন্য একজন ফেরেশতাকে তাদের কাছে পাঠালেন ।


আল্লাহ পাকের হুকুমে ফেরেশতা মানুষের বেশে প্রথমে কুষ্ঠ রোগীর কাছে এসে উপস্থিত হয়ে তাকে বললেন তুমি কি চাও,কুষ্ঠ রোগী বললেন আল্লাহর নিকট আমার প্রার্থনা তিনি যেন আমাকে কুষ্ঠ রোগ থেকে মুক্তি দেন এবং আমার চেহারা সুন্দর করে দেন লোকালয়ে গেলে লোকজন আমাকে ঘৃণা না করে ,ফেরেশতা তার শরীরে হাত বুলিয়ে দোয়া করা মাত্র সে কুষ্ঠ রোগ থেকে মুক্তিলাভ করল এবং চেহারা সুন্দর হয়ে গেল তারপর ফেরেশতা তাকে পুনরায় জিজ্ঞাসা করলেন তুমি কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা করো। লোকটি বলল উট আমার বেশি পছন্দনীয় তখন ফেরেশতা তাকে একটি গর্ভবতীর উট দান করলেন ও এর বরকতের জন্য আল্লাহ পাকের দরবারে দোয়া করলেন তারপর ওর কাছ থেকে বিদায় হয়ে গেলেন

by google image

এরপর ফেরেশতা টাক মাথার ব্যক্তির কাছে উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞাসা করলেন তুমি কি চাও লোকটি বলল আমি আল্লাহর কাছে আমার মাথায় সুন্দর চুল চাই ,যেন লোকজন আমাকে দেখে এড়িয়ে না চলে তার মাথায় হাত বুলিয়ে আল্লাহর কাছে তার চুলের জন্য দোয়া করার সাথে সাথে তার মাথায় চুল গজিয়ে উঠলো। পুনরায় ফেরেশতা তাকে জিজ্ঞাসা করলেন তুমি কি কোন জিনিস পছন্দ করো, সে বলল আল্লাহপাক আমাকে একটি গুরু দান করলে আমি অত্যন্ত উপকৃত হতাম ।ফেরেশতা তাকে একটি গর্ভবতী গাভী দান করলেন। এবং আল্লাহ পাক এতেই তোমার বরকত দান করবেন এই বলে তিনি ওখান থেকে চলে গেলেন।ইসলামের ইতিহাসে কয়েকটি সত্য ঘটনা Islam is good and wonderful 2023

by google image

এরপর অন্ধ লোকটির কাছে এসে ফেরেশতা বললেন তুমি কি চাও লোকটি বলল আল্লাহপাক যেন আমাকে আমার চোখ দুটি ফিরিয়ে দেন যাতে আমি তার সুন্দর দুনিয়া নয়ন ভরে দেখতে পারি। ফেরেশতা তার চোখে হাত বুলানোর সাথে সাথে সে নতুন চোখ ফিরে পেল এবং সমস্ত কিছু দেখতে পেলে সে খুব আনন্দ পেলো। ফেরেস্তা আবার তাকে জিজ্ঞাসা করলেন তুমি কি কোন জিনিস পছন্দ করো ,তিনি বললেন আমাকে একটি বকরি বা ছাগল দিলে খুব ভালো হতো। তখন ফেরেশতা তাকে একটি গর্ভবতী বকরি এনে দিলেন এবং বরকতের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করলেন এরপর তিনি সেখান থেকে অদৃশ্য হয়ে গেলেন।

কিছুদিনের মধ্যেই ওই তিন ব্যক্তির উট ,গরু এবং বকরিতে মাঠ পরিপূর্ণ হয়ে গেল এখন তারা প্রত্যেকে হয়ে গেলেন ধনী বা বড়লোক। কিছুকাল পর সেই ফেরেশতা পূর্বের ন্যায় মানুষের বেশ ধরে প্রথমে কুষ্ঠ রোগীর কাছে এসে বললেন আমি ভ্রমনে এসে বড়ই অভাবী হয়ে পড়েছি। আমাকে যে জন্তুটি বয়ে নিয়ে বেড়াতো সেটাও মারা গেছে। এবং আমার কাছে যা টাকা ছিল সেটাও শেষ হয়ে গেছে। দয়া করে আপনি যদি আমাকে সাহায্য করেন আমি খুবই উপকৃত হব।

এখন এক আল্লাহ ছাড়া আমার আর কোন উপায় নাই। যে আল্লাহ আপনাকে এমন সুন্দর স্বাস্থ্য এবং চেহারা দান করেছেন তার, আপনার এত উট এবং এই বুকের মধ্য থেকে আমি একটি উট কামনা করছি বা আপনার কাছে চাইছি। মেহেরবানী করে আপনি আমাকে একটু দান করুন। যাতে আমি চড়ে কোনরকম ভাবে বাড়ি পৌঁছাতে পারি। এবারেই ধনী বা বড়লোক লোকটি বলল এই হতভাগা এখন তুই এখান থেকে বের হয়ে যা আমারই নিজেরই এখন অনেক প্রয়োজন তোকে দেবো কোথায় থেকে, কাজেই তোকে দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব না। ফেরেস্তা তার কথা শুনে বললেন কথা শুনুন আমার মনে হয় তোকে আমি চিনি।

তুমি এক কুষ্ঠ রোগী ছিলে না? লোকে তোমাকে এই রোগের কারণে তুচ্ছ ঘৃণা করতো। তুমি কি নিঃস্ব ছিলে না ? তারপর আল্লাহ তায়ালা কি তোমাকে এসব দান করেননি? লোকটি বললো, কি বলছো এসব বাপ দাদার কাল থেকে আমাদের এ সম্পদ। পরম্পরায় আমরা এসব ভোগ বা দখল করে আসছি। ফেরেশতা বললেন তুমি যদি মিথ্যুক হও তবে আল্লাহ পাক যেন তোমাকে সেরুপ করে দেন যেমন তুমি আগের মত ছিলে। এ কথা বলে ফেরেশতা ওখান থেকে চলে গেলেন। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই লোকটি আবার সর্বহারা হয়ে পূর্বের অবস্থায় এসে পৌঁছালেন।

এরপর ফেরেশতা টাক পড়া ব্যক্তির কাছে গেলেন। লোকটির বর্তমানে খুবই সুন্দর চেহারা। এমন সুন্দর কালো ঘন চুলে লোকটিকে খুব সুন্দর দেখাচ্ছে যে ,যেন মনে হচ্ছে লোকটির মাথায় কোনদিন টাক ছিল না। লোকটি এখন খুব সুখেই আছে। ফেরেস্তা তার কাছে এসে একটি গরু চাইলেন, এবং সেই লোকটি অনেক কটু কথা শোনালেন এবং শেষমেষ তাকে একটিও গরু দিতে রাজি হলেন না। এবার ফেরেশতা বললেন তুমি যদি মিথ্যাবাদী হও তবে তোমাকে আল্লাহ পাক আগের জায়গায় ফিরিয়ে দিবেন। এই বলে তিনি চলে গেলেন এবং কিছুদিনের মধ্যেই তার মাথার চুল পড়ে গেল এবং তার সমস্ত ধন-সম্পদ

সবশেষে ফেরেস্তা ওই অন্ধ অন্ধ ব্যক্তির কাছে গেলেন বললেন বাবা আমি মুসাফির খুবই বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। আমার হাত একদম শূন্য। আপনি যদি কিছু আমাকে না দান করেন তাহলে আমার আর কোন উপায় নাই। যে আল্লাহপাক আপনাকে এত কিছুর মালিক করে দিয়েছেন তার নামে আমাকে একটি ছাগল দান করুন যাতে কোনভাবে আমার অভাব দূর করে বাড়ি পৌঁছাতে পারি। লোকটি বলল আমিও একদিন এইরকমই নিঃস্ব ছিলাম।

আমিও আমার অতীত জীবনের কথা এখনো ভুলিনি। এবং তিনি আল্লাহর প্রশংসা করে বললেন আল্লাহ পাক যে কেবল নিজ রহমতে আমার দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে দিয়েছে শুধু তাই নয় এবং তিনি আমাকে অনেক ধনসম্পদ দান করেছেন এসব আল্লাহ পাকেরই কৃপা। আমার নিজস্ব কিছুই নাই তার দয়াই আমি এসব পেয়েছি। আপনার যে ছাগলটি ইচ্ছা এবং যতটা ইচ্ছা আপনার ইচ্ছামত নিয়ে যান। যদি আপনি চান আমার পরিবার সন্তান সন্ততির কিছু রেখে যাবেন তাহলে রেখে যেতে পারেন , আর না রাখলেও কোন অসুবিধা হবে না, আল্লাহপাক আমাকে আবার দিবেন, ইনশাআল্লাহ।

ফেরেশতা বললেন বাবা এসব তোমারই থাক আমার এসবের কোন কিছুরই প্রয়োজন নাই তোমাদের তিনজনকে পরীক্ষা করার আমার উদ্দেশ্য ছিল পরীক্ষা শেষ হয়ে গেছে তারা দুজন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেনি, যাদের উভয়ের প্রতি আল্লাহ পাক অসন্তুষ্ট হয়েছেন। একমাত্র তুমি পরীক্ষায় পাশ করলে ফলে আল্লাহ তোমার প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছেন।

by google image

হে লোক সকল একটু ভেবে দেখুন। প্রথম দুজন লোকটি আগে কি অবস্থায় ছিল এবং পরবর্তীতে কি অবস্থায় এলো এসব আল্লাহপাকের দান। অথচ তারা ধনী বা বড়লোক হয়ে আগের অবস্থার কথা ভুলে গেল এটা একদম ঠিক নয় আল্লাহ পাকের দেওয়া ধন- সম্পদ আবার তিনি ফিরিয়ে নিলেন। এদেরকে কিন্তু প্রকৃত মানুষ বলা যায় না। এদের প্রতি আল্লাহ নারাজ। হয়তো তাদের কাছে ধনসম্পদ টাকা পয়সা আছে। কিন্তু মানুষের প্রতি ভালোবাসা এবং আল্লাহ পাকের প্রতি বিশ্বাস নাই। সব সময়, প্রতিটি কাজে প্রতি জায়গাতে আল্লাহপাককে স্মরণকরে চলতে হবে কিন্তু সেটা না করে অহংকার ও টাকার বড়ত্ব দেখায়।

দুনিয়াতে তার বিনিময়ে সে আখেরাতে কিছুই পাবে না। বনের জন্তু-জানোয়ার ও এদের থেকে ভালো। তারা কিন্তু মানুষের উপকার কোনদিন ভুলে যায় না। তারপরে তৃতীয় জন লোকটি এত ধন সম্পদ পেয়েও আগের অতীতের কথা ভুলিনি এবং সব সময় আল্লাহ পাকের শুকরিয়া আদায় করেছে । তার জন্যই তো তার সমস্ত ধন সম্পদ রয়ে গেছে। এ দুনিয়াতেও সে তার ফল ভোগ করবে এবং সে আখেরাতেও তার বিনিময় ভোগ করবে।

তৃতীয় জন ব্যক্তির মতই মানুষ হলো প্রকৃত ব্যক্তি এবং প্রকৃত পক্ষে মানুষ তারাই মানুষ যারা অতীত জীবনের কথা মনে করে আল্লাহ পাকের শুকরিয়া আদায় করে। প্রতিটি মানুষকে এরকমই হওয়া উচিত।

Read More>>>>>>>>>

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *