" crossorigin="anonymous"> এবার কি ডোমকল পৌরসভার 21 নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মানুষের স্বপ্ন সফল হবে, না অধরাই থেকে যাবে My village is very nice and wonderful - Sukher Disha...,

এবার কি ডোমকল পৌরসভার 21 নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মানুষের স্বপ্ন সফল হবে, না অধরাই থেকে যাবে My village is very nice and wonderful

মানুষের অনেক রকমের সপ্ন থাকে ।সবার সপ্ন কি পূরণ হয় । কিছু মানুষের কিছু সপ্ন পূরণ হয়,আর কিছু সপ্ন স্বপ্নই থেকে যায় । আজ আপনাদের কে এই রকম একটা সপ্নের কথা বলবো। তবে এই সপ্ন একজনের নয়,এই সপ্ন গোটা এলাকাবাসীর । আসুন দেখি সেই সপ্নটা কি ।

এবার কি ডোমকল পৌরসভার 21 নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মানুষের স্বপ্ন সফল হবে, না অধরাই থেকে যাবে My village is very nice and wonderful

মুর্শিদাবাদ জেলার ডোমকল থানার “ডোমকল পৌরসভা” নামে পরিচিত এই পৌরসভাটি । 21টি ওয়ার্ড নিয়ে এই পৌরসভা গঠিত হয়েছে । যদিও এই পৌরসভাটি বেশ কয়েক বছর আগে ছিল না । আগে এই এলাকা গুলি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনে ছিল। এটি 2010সালে একদম নতুন ভাবে গঠিত হয়েছে ।

এই পৌরসভার বর্তমান চেয়ারম্যান জাফিকুল ইসলাম মহাশয়। আর আমাদের 21 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেন । আর ওয়ার্ড সভাপতি সাহাবুদ্দিন মন্ডল । তিন জনে খুব ভালো লোক ও জনদরদী নেতা। এরা জনগনের কথা ভাবে । যে কোন কাজে এগিয়ে আসে জনগণ কে সাহায্য করার জন্য ।এবার কি ডোমকল পৌরসভার 21 নম্বর ওয়ার্ড এলাকার মানুষের স্বপ্ন সফল হবে, না অধরাই থেকে যাবে My village is very nice and wonderful

আমাদের গ্রামের বিস্তারিত


যে এলাকার রাস্তাতে বর্ষার সময় 6মাস নামা যেত না,গাড়ি ঘোড়া কিছুই চলতে পারতো না । রাস্তাতে এত কাদা হতো যে এই 6মাস মানুষ গ্রামের বাইরে যেতে পারতো না । অনেক সমস্যায় পড়তে হতো । গ্রামে কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতালে যেতে পারতো না । আর বাইরের কেউ গ্রামে আসতে পারতোনা । এতে করে প্রতি বর্ষায় বেশ কিছু মানুষ মারা পড়তো ।মানুষ অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতো । গ্রাম পঞ্চায়েতে এই অবস্থার কথা বেশ কয়েকবার জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি । তারপরে আবার ছিল না ইলেকট্রিক


এত সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে আরেকটি বড় সমস্যা যেটা সেটা হলো গ্রামের পানীয় জলের অভাব । গ্রামে কোনো পরিশুদ্ধ আর্সেনিক ও আয়রন মুক্ত পানিয় জলের কোন ব্যবস্থা ছিল না । কিন্তু প্রতিটি বাড়িতেই টিওবয়েলের ব্যবস্থা ছিল অথচ এইসব টিউবয়েলের পানি পান করার উপযুক্ত ছিল না । কারণ এগুলো কোনো গভীর নলকূপ নয় । এ কারণে এগুলোতে আর্সেনিক ও আয়রনের পরিমাণ ছিল অনেক বেশি । পান করা জল পরিষ্কার না হলে পেটের অনেক রোগ হতো । এই আর্সেনিকের কারণে অনেক মানুষ প্রায়ই মারা যেত ।


গ্রামে যাদের অবস্থা ভালো ছিল তারা গ্রাম ছেড়ে শহরে চলে যেতে শুরু করলো । এই শিক্ষিত মানুষ গ্রাম ছেড়ে চলে যাওয়াতে গ্রামের আরো ক্ষতি হতে লাগলো । কিন্তু যাদের অবস্থা দরিদ্র তারাতো আর গ্রাম ছাড়তে পারবে না । তাই তারা গ্রামেই কষ্ট করে থেকে গেলো । গ্রামের সবাই মিলে গ্রাম পঞ্চায়েতে পান করা জলের জন্য দরখাস্ত করলো । গ্রামের বেশ কিছু লোক পঞ্চায়েতে যাওয়াতে এবার এই দরখাস্তে কাজ হলো ।

গ্রামে বিশুদ্ধ পানীয় জলের জন্য পাইপ বসানোর কাজ শুরু হলো । গ্রামের সবাই আনন্দে আত্মহারা । যাইহোক সবাই এবার আর্সেনিক ও আয়রন মুক্ত জল পান করতে পারবে । গ্রামে খুশির সরগল পড়ে গেলো । এরই মধ্যে পাইপ বসানোর কাজ শেষ হয়ে গেল । কিন্তু এখানেই সব শেষ। সেই যে পাইপ বসিয়ে তারা চলে গেল আর তারা ফিরে আসেনি। সেই পাইপ এদিকে 6/7 বছর ধরে বসানোয় আছে ।


পৌরসভা হওয়াতে গ্রামের সবকিছু পরিবর্তন হয়ে গেছে । গ্রামে আর কোনো কাচা রাস্তা নেয় । ইলেকট্রিকের আলোতে গোটা গ্রাম এখন আলোয় ঝলমল করে ।
গ্রামের মানুষের সব স্বপ্ন বাস্তবে সফল হলেও কিন্তু একটি জায়গায় এর কমতি রয়ে গেছে । এখনও সেই পানির অভাব অভাবই রয়ে গেছে । এখনো গ্রামের মানুষ সরকারের পক্ষ থেকে আর্সেনিক ও আইরন মুক্ত পানির মুখ দেখেনি ।

তবে এবার হয়তো এই পানির অভাব দূর হবে আর গ্রামের মানুষের স্বপ্ন সফল হবে । এবার পাকাপাকিভাবে এই সমস্যা দূর করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে । JCB দিয়ে মাটি খুঁড়ে আবার গ্রামে গ্রামে পাইপ বসানোর কাজ শুরু হয়েছে । আর সেই সাথে গ্রামের মানুষ আবার বলতে শুরু করেছে যে এবারও সেই আগের মতই পাইপ বসিয়েই তার কাজ শেষ হয়ে যাবে । এই পাইপে আর আর্সেনিক বা আয়রন মুক্ত পানিয় জল চলাচল করতে পারবে না । এখন শুধু দেখার পালা ।


এবার হয়তো গ্রাম বাসীর স্বপ্ন সফল হবে কারণ যে গ্রামে শুধু কাচা রাস্তা ছিল সেই কাচা রাস্তা আজ পাকা রাস্তায় পরিণত হয়েছে । যে গ্রাম একদিন অন্ধকারে ঢাকা ছিল সেই গ্রাম আজ আলোয় ঝলমল করছে । সেই দিকে তাকিয়ে এখন মানুষ আসার সপ্ন দেখছে ।

Read More>>>>>

14 February is a good and wonderful day 14 ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালোবাসা দিবস বা ভ্যালেন্টাইনস ডে এর সম্পর্কে কিছু কথা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *