" crossorigin="anonymous"> ক্ষমা নবীজির একটি মহত গুণ The great man 2023 - Sukher Disha..., উটের পিঠে চড়ে মক্কা থেকে মদিনায় যাচ্ছিলেন তিনি । খুব সাবধানে এবং সন্তর্পনে । ঘরে বাইরে সব জায়গায় শত্রু । হয়তো ভাবছিলেন না জানি পথে কি হয় । যদি শত্রু পক্ষের কানে পৌঁছে যায় তাদের শত্রু কন্যায় যাচ্ছেন মদিনায় । তাহলে তো মহা বিপদে পড়তে হবে । মৃত্যুদণ্ড দিতে পারে ।

ক্ষমা নবীজির একটি মহত গুণ The great man 2023

উটের পিঠে চড়ে মক্কা থেকে মদিনায় যাচ্ছিলেন তিনি । খুব সাবধানে এবং সন্তর্পনে । ঘরে বাইরে সব জায়গায় শত্রু । হয়তো ভাবছিলেন না জানি পথে কি হয় । যদি শত্রু পক্ষের কানে পৌঁছে যায় তাদের শত্রু কন্যায় যাচ্ছেন মদিনায় । তাহলে তো মহা বিপদে পড়তে হবে । মৃত্যুদণ্ড দিতে পারে ।

ক্ষমা নবীজির একটি মহত গুণ The great man 2023


ঘটল ও তাই। খবর পৌঁছে গিয়েছিল শত্রু শিবিরে, কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে ছুটেছিল আব্বার । রুখে দাঁড়িয়ে ছিল পথ । হাতে তার দীর্ঘ বর্ষা । ও দূরেই দেখতে পেয়েছিল উটের সওয়ারী সেই মেয়েটিকে। একটু আত্মগোপন করেছিল । তারপর কাছে আসতেই সজরে বর্ষার খোঁচা মেরেছিল উট টিকে । উটটি মুখ থুবড়ে পড়েছিল । আর পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সবারই মেয়েটিও আচমকা লাফিয়ে উঠেছিল পাথরে ।

by google image


ঘটনাটি মনে করতে হাব্বারেরই এখন খারাপ লাগছে। ছি ছি কত অপরাধ করেছে সে । এই হাত দিয়ে কত নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে । হাব্বারেরা এখন পরাজিত । সেই মেয়েটির পিতাই এখন সর্বময়কর্তা । তিনি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম । হাব্বার এতদিনে তার ভুল বুঝতে পেরেছে । মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মানুষের অজ্ঞতা অশিক্ষা কুশিক্ষা কুসংস্কার অরাজকতা থেকে মুক্তি দিতে চেয়েছেন তার প্রাণের উম্মতকে ।

গোত্রকলহ ,কোন্দল, মারামারি হানাহানি থেকে আরববাসীকে উদ্ধার করতে চেয়েছেন। শুধু আরববাসীকে নয় বিশ্বের প্রত্যেকটা মানুষকে তিনি উদ্ধার করতে চেয়েছেন । তিনি বলেছেন আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় । তার কোন রূপ নেই । তার কোন শরীক নেই । অসহায় দূর্গতদের সেবা করতে । অত্যাচারিত কে সাহায্য করতে এবং গরিব মিসকিনকে দান করতে তিনি বলেছেন । বহু মানুষ তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে । বহু মানুষ তার সঙ্গে শত্রুতাও করেছে । পরে তাদের ভুল বুঝতে পেরে আবার তিনার সাথ দিয়েছেন । যারা এতদিন শত্রুতা করেছিল তারাও এসে ক্ষমা চাইছে তার কাছে । কিন্তু হব্বারকে কি ক্ষমা করবেন তিনি? যে হাব্বার তার কন্যা জয়নবের মৃত্যুর কারণ । তা কখনো সম্ভব । হব্বার ভাবলো বিদেশ পালিয়ে যাবে । এছাড়া তার কোন পথ নেই ।


শেষমেষ আত্মরক্ষার জন্য যখন পালিয়ে যাচ্ছে ঠিক তখনই ওকে দেখে ফেলে নবীজির অনুচরেরা। চিনেও ফেলেছে হাববার কে । অত্যাচারের মহানায়ক সে । ঘিরে ফেলেছে চারিদিক থেকে । নতুন করে কোন ক্ষতি করবে না তো । নবীজির ঊনচরেরা তাকে ধরে আনে নবী(সাঃ) কাছে ।


হাব্বার কে দেখামাত্রই । পিতৃ হৃদয় কেঁপে উঠলো মোহাম্মদ (সাঃ) এর । জয়নগর কথা মনে পড়তেই কয়েক ফোটা অশ্রু গড়িয়ে পড়লো গাল বেয়ে । তাই দেখে হাব্বার কে উপযুক্ত শাস্তি দিতে উদ্যত হলো অনুচরেরা । কিন্তু হঠাত উদ্যত ও রাগান্বিত সাঙ্গ-পাঙ্গদের থামিয়ে দিয়ে তিনি বললেন । তোমরা থামো । তারপর ধীর পায়ে এগোলেন হাব্বারের দিকে । খুঁটে খুঁটে পর্যবেক্ষণ করলেন তার সারা শরীর । এই সেই হাত যে হাত আহত করেছে তার প্রিয় কন্যা জয়নাব কে । যন্ত্রণায় পড়ে যাচ্ছেন নবীজি (সাঃ) । নবীজি কাতর কণ্ঠে জিজ্ঞাসা করলেন তুমি সেই হাব্বার ?

by google image

দাম্ভিক হাব্বার অকপটে সব স্বীকার করল আজ । বলল হ্যাঁ নবী(সাঃ) আমি সে হাব্বার। বহু মানুষকে আমি খুন করেছি এমনকি আপনার কন্যার জয়নবের মৃত্যুর কারণও আমি। আমাকেও সেই ভাবে হত্যা করার আদেশ দেন আপনার অনুচর দেরকে ।
অকপট স্বীকারোক্তি হাব্বারের । তার বর্ণনা শুনে জ্বলে পুড়ে মরছিল নবীজির অনুচরেরা বদলা চাই শুধু আদেশের অপেক্ষা কিন্তু হঠাত সবকিছু উলটপালট হয়ে গেল আব্বারের হাত দুটি ধরে হাউ হাউ করে


অকপট স্বীকারোক্তি হাব্বারের । তার বর্ণনা শুনে জ্বলে পুড়ে মরছিল নবীজির অনুচরেরা । বদলা চাই । শুধু আদেশের অপেক্ষা । কিন্তু হঠাত সবকিছু উলটপালট হয়ে গেল । আব্বারের হাত দুটি ধরে কেদে উঠলেন তিনি । তারপর হাত দুটি বুকের কাছে এনে শুধু বললেন তুমি মুক্ত ।

আল্লাহ তোমায় ক্ষমা করুন । শাস্তিও যে এমন শিক্ষণীয় এবং মধুর হয়ে ওঠে তার অভূতপূর্ব দৃষ্টান্ত রাখলেন হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম । আমার নবীজি সব জায়গায় সবাই কে এভাবেই ক্ষমা করে দিয়েছেন তিনি। এই ক্ষমা করার ঘটনা শুধু ইসলামের ইতিহাসেই নয় এরকম ঘটনা পাওয়া যাবে না বিশ্বের কোন ইতিহাসে ।

by google image

এই ঘটনা নিয়ে আমার লেখা একটি কবিতায় এর সঙ্গে জুড়ে দিলাম

মক্কা বিজয় পর,
হাব্বারে ধরি আনলেন যত নবীজির অনুচর ।
তার দিকে চেয়ে নবীজির হলো অশ্রু প্লাবিত আখি ,

অত্যাচারের মহাসেনায়ক ভুলতে পারন না তা কি ?
সে -ই হাব্বার যে করেছে হাই শান্তির অবরোধ ,
অসহায় জনে হত্যা করে সে জীবন করেছে শোধ ।

নবীজি – দুহিতা বিবি জয়নাবকে হত্যা করেছে এই,
আজ সে বন্দি দুহিতা-হন্তা জনকের সম্মুখেই ।
নবী বললেন কাতর কণ্ঠে, তুমি সেই হাব্বার?
হাব্বার কয়, আমি সেই পাপী, ঢেকে লাভ নেই আর ।

আত্ম ত্রাণের জন্য যখন হচ্ছে দেশান্তর ,
তখনই আমায় তোমার লোকেরা বন্দি করেছে পয়গম্বর ।
আনো তলোয়ার, কেটে ফেলো শির, আমি সেই পাপাচারি,
তোমার সে প্রিয় দুহিতারে নবী আমিই বর্ষা মারি ।
মক্কা হতে সে মদিনায় যবে করেছিল পলায়ন,
বর্ষার খোঁচা আমিই মেরেছি তলপেটে অকারণ ।

সারা সভা যেন নিরব নিথর, গম্ভীর পরিবেশ ,
পাশে ছিল যত নব মুসলিম সবাই রেগে আগুন ।
ধীরপায়ে নবি নিকটে এলেন — এই সেই বর্ষায়,
প্রিয় দুহিতার পেটে হাব্বার খোঁচায় নির্দ্বিধায় ।
নবীজির চোখে বাঁধ ভাঙে পানি ,যত ছিল বুকে জমা,
হাববারে কন,মুক্ত হে তুমি, আল্লাহ করুন ক্ষমা ।

Read More>>>>>>

The beautiful and wonderful country of the United Arab Emirates 1 আরব আমিরাতের কিশোরের বিলাসিতা চলুন দেখি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *