" crossorigin="anonymous"> দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান The month of Ramadan is important and special for Muslims - Sukher Disha...,দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান 2023

দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান The month of Ramadan is important and special for Muslims

2024 সালের রমজান মাস শুরু হবে 11ই মার্চ সোমবার থেকে । আরবি মাস মুলত চাঁদের হিসাব অনুযায়ী হয় । সেই হিসাবে দুই একদিন এদিক ওদিক হতে পারে ।

দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান 2023

by google image


মুসলিম বিশ্ব প্রায় 11মাস পরে আবার পেতে চলেছে বরকতের মাস রহমতের মাস মাগফেরাতের মাস মাহে রমজান । মুসলিমদের কাছে এই মাস অতীব বরকতের । এই মাস মূলত আরবী সালের নবম মাস । এই রমজান মাসের আগের মাস সাবান আর রমজান মাসের পরের মাস শাওয়াল । এই মাসে আল্লাহ পাকের রহমত, মাগফিরাত ও নাজাত বৃষ্টির মত বর্ষিত হয় । এই মাস মুসলিম বিশ্বের কাছে আনন্দের মাস । দীর্ঘ একমাস উপবাস থাকার পর তারা ঈদের নামাজের জন্য হাজির হয় ইদের ময়দানে । তারা ধনী দরিদ্র একত্রিত হয়ে কাধে কাধ মিলিয়ে ঈদের নামাজ আদায় করে। সেখানে গরীব বড়োলোকের কোন ভেদাভেদ থাকে না ।

by google image

দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান 2023


রোজা হল ইসলামের তৃতীয় স্তম্ভ । সুবহে সাদেক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত রোজা থাকতে হয় অর্থাত এর মধ্যে কোন কিছুই খাওয়া চলবে না । আল্লাহকে রাজি করার উদ্দেশ্যে সকল প্রকার পানাহার ও স্ত্রী সঙ্গম হতে বিরত থাকার নাম রোজা । রোজা কোন উপবাস নয় এটি একটি খালেশ বিশুদ্ধ ইবাদত । কোরআনুল কারিমে আল্লাহপাক বলেন পূর্ববর্তী উম্মতদের মতো তোমাদের উপর রোজা ফরজ করা হলো, যাতে তোমরা মুত্তাকী খোদাভীরু হতে পারো ।

by google image

আল্লাহর নবী রাসুল(সাঃ) যে ব্যক্তি রমজানের প্রথম হতে শেষ পর্যন্ত রোজা রাখে সে সদ্যোজাত ভূমিষ্ঠ শিশুর মত নিষ্পাপ হয়ে যাবে , অর্থাত তার অতীতের সমস্ত পাপ ক্ষমা করে দেয়া হবে । আরো আশ্চর্যের বিষয় হল এই মাসে এমন একটি রাত্রি আছে যাকে শবে কদর বলা হয় এই রাত্রি হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম । এই রাত্রে আল্লাহপাকের সমস্ত সৃষ্টিকুল তার কদম মোবারকে সিজদায় অবনত হয় ।

by google image

দীর্ঘ 11 মাস পরে আবার ফিরে আসছে মাহে রমজান 2023


এই মাসে সীমাহীন বরকত রয়েছে । কেউ যদি এক টাকা কোন গরিব মিসকিনকে দান করে তাহলে সত্তর টাকা দান করার সওয়াব তার আমল নামাই লেখা হয় । আবার কেউ যদি এক রাকাত নামাজ পড়ে তাহলে তার আমলনামা সত্তর রাকাত নামাজ পড়ার সওয়াব লেখা হয় । এইমাস ধৈর্যের মাস । ইহা সমবেদনা ও সহমর্মিতার মাস । এই মাসে মুমিন বান্দার রোযী বৃদ্ধি করা হয় ।

by google image

আর ধৈর্য, সমবেদনা ও সহমর্মিতার বদলে রয়েছে জান্নাত । এই মাসে গরিবদের কেউ সমান চোখে দেখা হয় । এই অফুরন্ত নেকীর মাস মাহে রমজান এই মাসে ফিতরার ব্যবস্থা করা হয়েছে যারা ধনী থেকে মধ্যবিত্ত ব্যক্তি তারা প্রত্যেকের মাথাপিছু এক নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ বা আনাজ গরিব মিসকিনকে দেয়া হয় , যাতে তারাও এই মাসে সবার মতো করে আনন্দে সামিল হতে পারে ।

by google image

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *