" crossorigin="anonymous"> পানি আল্লাহ পাকের একটি বড় নেয়ামত ও বিস্ময়কর গুণ Water is an important and extraordinary substance of life 1 - Sukher Disha...,

পানি আল্লাহ পাকের একটি বড় নেয়ামত ও বিস্ময়কর গুণ Water is an important and extraordinary substance of life 1

পানি নামটি শুনতে ছোট হলেও এর গুরুত্ব কিন্তু পৃথিবীর সমান ।পানি একটি গুরুত্বপূর্ণ নাম । এই পানি একটি অজৈব সাদ গন্ধহীন আকার বিহীন স্বচ্ছপদার্থ । এই পানি প্রাণী ও উদ্ভিদ দেহের একটি প্রধান উপাদান । এই পানি পৃথিবীর সকল প্রকার জীবের একটি গুরুত্বপূর্ণ অপরিহার্য পদার্থ ।

পানি আল্লাহ পাকের একটি বড় নেয়ামত ও বিস্ময়কর গুণ Water is an important and extraordinary substance of life 1

এখানে মানুষের শরীরে পানির গুরুত্ব নিয়ে কিছু আলোচনা করা হলো :-

1) স্লিম রাখে :- ওজন কমাতে চাইলে বেশি করে পানি পান করতে হবে । পানি অন্যান্য খাবারের পরিপাক ও শ্বসন মেটাবলিজম ত্বরান্বিত করে । একই সঙ্গে পানি খেলে পেট ভরে যায় বলে খাবার গ্রহণের পরিমাণ কমে যায় । ওজন কমানোর জন্য ঠান্ডা পানি বেশি কার্যকর । বরফ ঠান্ডা পানি খেলে মেটাবেলেজাম বাড়ে । কারণ এই ঠান্ডা পানিকে শরীরের নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় আনতে শরীরকে বাড়তি কাজ করতে হয় । এতে ক্যালরি ক্ষয় হয় ওজন কমাতে বা সবচেয়ে বেশি দরকার এই পানির ।এই কারণে মহাকাশ বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন গ্রহে কোন প্রাণীর অস্তিত্ব খোঁজার আগে পানির অস্তিত্ব খুঁজে বেড়ায় ।

by google image

2) শক্তি যোগায় :- শরীরে যখন ডি হাইড্রেশন বা পানি শূন্য হয়, তখন শরীরের কোষগুলো গুলো পর্যাপ্ত পানি পায় না । ফলে পুরো শরীরটাই দুর্বল ও নিস্তেজ হয়ে পড়ে। পানি পেলে যেমন বাগানের গাছগুলো সতেজ হয় তেমনি শরীর ও সতেজ হয় । পানি কমে গেলে শরীরে রক্তের পরিমাণও কমে যায় । ফলে কোষে অক্সিজেন ও মিনারেল কমে যায় । পানির পরিমাণ ঠিক থাকলে অক্সিজেন ও মিনারেল পেতে কোষের কোন সমস্যা হয় না এতে কোষ দীর্ঘদিন স্থায়ী হয় । শুধুমাত্র পানি খেয়েই একটা মানুষ বেশ কিছুদিন বেঁচে থাকতে পারে ।

by google image

3) মানসিক চাপ কমায়:- মস্তিষ্কের ৮৫ অংশই পানি । যখন মস্তিষ্ক পানি শূন্য হয় স্বাভাবিকভাবেই মস্তিষ্কের সকল কর্মকান্ডে ভীষণ বিঘ্ন ঘটে । তৃষ্ণা পেলেই বুঝতে হবে মস্তিষ্কের পানির ঘাটতি পরেছে । কথায় বলে ভয়ে গলা শুকিয়ে যায় । ভয় পেলে মস্তিষ্ক তার স্বাভাবিক কাজ করতে পারে না, তৃষ্ণার মাধ্যমে শরীরকে জানিয়ে দেয় তার পানির প্রয়োজন । কোন চাপ অনুভূত হলেই তা পরীক্ষা হোক বা ব্যবসা চাকরির টেনশন হোক বেশি করে পানি পান করতে হবে তাহলে চাপ কমে যাবে এবং মস্তিষ্ক কাজ করতে পারবে স্বাভাবিক ভাবেই । পানি মানুষের সকল দুশ্চিন্তার প্রায় 70% দূর করে দেয় । মানুষের শরীরে পাকস্থলীর হজমের কারণে যে গ্যাস উতপন্ন হয় তা পানির মাধ্যমে অনেকটাই নষ্ট হয়ে যায় ।

by google image

4) শরীর গঠনে সাহায্য করে :- শুধু মস্তিষ্কে 85% পানি থাকে এটা কিন্তু নয় । শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পানির পরিমাণ টাই বেশি । সেই হিসাবে শরীরের জয়েন্টেও পানি থাকে । শরীর ঠিক মতো পানি পেলেই তার সকল মাংসপেশী কাজ করতে শুরু করে । অতএব ব যেকোনো কাজের মধ্যেই থাকুন না কেন শরীরকে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি দিতেই হবে । সুতরাং ক্রীড়াবিদ বা খেলোয়ার হোন, মাস্টার হন বা প্রফেসর হন , ডাক্তার হোন বা নার্স হোন, চাষী হোন বা মজুর হোন শরীরের মাংসের পেশিকে সুগঠিত ও সতেজ রাখতে চাইলে যেকোনো অবস্থাতেই প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে ।

5) চামড়া বা ত্বক সুস্থ রাখে :- কসমেটিক কোম্পানিগুলো ব্যবসা করে যাচ্ছে এই চিন্তাকে দূর করার কৌশল নিয়েই । বয়সের সীমা রেখা কমানো, ত্বকের খসখসে ভাব দূর করা,রং ফর্সা করা সারাদিন তরতাজা থাকা এসবের জন্য পানি কাজ করতে পারে সবচেয়ে বেশি । ত্বকের কোষ সুস্থ ও সতেজ থাকলে এমনিতেই মানুষকে ফ্রেশ ও সজীব দেখাবে । পানি ত্বকের পানি শূন্যতা কমায় । ত্বকের কোষ কে পরিপূর্ণ রাখে এতে মুখমণ্ডল থাকে তরুণ ও কোমল ।

একটি মানুষ যদি সারা জীবন শরীরের যে চাহিদা সেই চাহিদার মত পানি পান করে , তবে সে ব্যক্তির লাগবে না কোন ঔষধ বা লাগবে না কোন কসমেটিক্স এমনিতে তার শরীর থাকবে রোগমুক্ত বা সতেজ ও বাড়তি চিন্তা মুক্ত ।

by google image

6) পাকস্থলীর হজমে সাহায্য করে :- বিশেষ করে খাবারের সময় পানি পান করতে হবে তাহলে খাবার তাড়াতাড়ি হজম হবে । শাকসবজি এবং আঁশযুক্ত খাবারের সঙ্গে প্রচুর পানি পান করতে হবে তাহলে কোষ্ঠকাঠিন্য কমে যাবে । অনেক বেশি পানি খেলে হজমের পর খাবারের বাড়তি অংশ সহজেই পানির সঙ্গে মিশে পায়খানা হিসেবে বেরিয়ে যাবে । যখন শরীরে পানির অভাব দেখা দিবে তখন অন্ত্রের মাধ্যমে পায়খানার সঙ্গে থাকা পানি শুষে নিবে তার ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য তৈরি হয় । তাই খাবারের সময়,আগে ও পরে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে ।

by google image

পানি আল্লাহ পাকের একটি বড় নেয়ামত ও বিস্ময়কর গুণ Water is an important and extraordinary substance of life 1

7) কিডনির পাথর ধ্বংস করতে পানি বিশেষ গুরুত্ব পূর্ণ :-পানি নির্দিষ্ট পরিমাণ মতো পান করলে কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায় । এবং পেটে পাথর হওয়ার ফলে প্রচুর পরিমাণে পানি খেলে সেই পাথর ধ্বংস হয়ে যাই। সেই পাথর ছোট হতে হতে প্রস্রাবের মাধ্যমে বের হয়ে যাই । বিশ্বজুড়ে ঠান্ডা পানীয় ব্যাপক বিস্তারের কারণে কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা বেশি ।

এই কোল্ড ড্রিংস পান করার সঙ্গে সঙ্গে পানি পান না করলে কিডনিতে পাথর সম্ভাবনা অনেক গুনে বেড়ে যায় । কিডনির পাথর আসলে এক ধরনের লবণ । যা পাথরের আকারে জমে পাথরের মত হয় । তাই যদি প্রচুর পরিমাণে পানি খাওয়া হয় তবে এই নুন জমে গিয়ে পাথর তৈরি করতে পারেনা । এবং যেটুকু তৈরি হয় সেটা প্রস্তাবের মাধ্যমে বেরিয়ে যায় ।নির্দিষ্ট পরিমাণে পানি না খেলে প্রস্রাবে জ্বালা যন্ত্রণা শুরু হয় । নির্দিষ্ট পরিমাণ এর থেকেও পানি যদি কোন ব্যক্তি কম খায় তার কিডনি নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।

পানি যেমন মানুষের জীবনের অতীব প্রয়োজন তেমনি বাহ্যিক জগতে পানির গুরুত্ব কিন্তু কম নয় । আমরা প্রতিনিয়ত যে বিদ্যুত ব্যবহার করে আসছি তার কিন্তু ৯০% পানি থেকে তৈরি হয়। আবার চাষ আবাদ করতে পানির যে কতটুকু গুরুত্ব সেটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না ।কারণ যেখানে পানি নাই সেখানে কোন জীবের অস্থিত্ব থাকতে পারে না ।পানি তৃষ্ণা মেটাই । শরীরের বেশিরভাগ অংশই পানি । এছাড়া কয়েকটি অবাক হওয়ার মত কাজ করে পানি ।

মানুষের পাক ও পবিত্র হতে পানির গুরুত্ব অপরিসীম । আজ আমরা যে মাছ নামক খাবার টি খেয়ে থাকি সেটি কিন্তু পানি ছাড়া ভাবা যায় না । কলকারখানায় পানি,ধান চাষে পানি,শাক সবজি তে পানি,পাট পচাতে পানি , পানি ছাড়া জীবন অচল , তাই তো পানির উপর নাম জীবন ।

Read More>>>>>>>

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *