" crossorigin="anonymous"> বাংলাদেশের ট্রেনে ভয়াবহ আগুন মৃত্যু বেশ কয়েকজনের Traveling by train feels good and wonderful 8january 2023 - Sukher Disha...,

বাংলাদেশের ট্রেনে ভয়াবহ আগুন মৃত্যু বেশ কয়েকজনের Traveling by train feels good and wonderful 8january 2023

জন্ম মত্যু বিবাহ এই তিনটি জিনিস আল্লাহ রব্বুল আলামীনের হাতে । আল্লাহ আলিমুল গায়েব । তাই একজন মানুষ কোথায় কি ভাবে জন্ম হবে,কার সাথে বিবাহ হবে,আর কবে কোথায় কি ভাবে মরবে সবই আল্লাহ জানেন ।

বাংলাদেশের ট্রেনে ভয়াবহ আগুন মৃত্যু বেশ কয়েকজনের Traveling by train feels good and wonderful 8january 2023

Accident-এর (এক্সিডেন্টের) কথা শুনলে ভয় পান না বা আঁতকে উঠেন না এই রকম লোক খুব কম আছে । সবাই কম বেশী ভয় করে থাকেন এই শব্দ টিকে । আপনার আসে পাসে খবর নিলে দেখতে পাবেন এই রকম এক্সিডেন্ট বা দুর্ঘটনা প্রতিদিন ঘটে চলেছে। কখনো ট্রেন এক্সিডেন্ট,কখনো বাস এক্সিডেন্ট,কখনো মোটরবাইক এক্সিডেন্ট,এই রকমই আরো কত এক্সিডেন্ট ঘটে তার সবকি মানুষ খবর রাখেন,না খবর পান । আর এই এক্সিডেন্টের বলি হয়ে কত মানুষ তার আপনজনদের হারাচ্ছে । আপনজনকে হারানোর যে কি কষ্ট তা একমাত্র তারাই বলতে পারবে যারা দূর্ঘটনায় বা এক্সিডেন্টে কোন আপনজনকে হারিয়েছেন।

by google image

আজ সেই রকমই একটি দুর্ঘটনা বা এক্সিডেন্টের কথা বলবো । এটা দুর্ঘটনা,না এক্সিডেন্ট, না প্লান মাফিক খুন না গনহত্যা এ নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে । এটা যদি accident বা দুর্ঘটনা হয়ে থাকে আর এর পিছনে যদি কারো হাত থাকে তবে আমি বলবো তাদের কে খুব তাড়াতাড়ি তদন্ত করে আগুনে পুড়িয়ে মারা উচিত।

দেখা যাক ঘটনাটি কী ঘটেছিল

তাহলে তারা বুঝতে পারবে আগুনে পুড়ে মরার কত যন্ত্রণা । আর এটা যদি প্ল্যান করে হয়ে থাকে তাহলে আসামিদেরকে ধরে তদন্ত না করেই পুড়িয়ে মারতে হবে । দেরি না করে যত তাড়াতাড়ি পারা যায় পুড়িয়ে মারতে হবে। তবে এটা যে ভাবেই হোক এটা খুবই দুঃখজনক । চলুন আর কথা না বাড়িয়ে দেখা যাক ঘটনাটি কি ।

ঘটনাটি বাংলাদেশের । বাংলাদেশের বেনাপোল এক্সপ্রেস । বাংলাদেশের অন্যান্য এক্সপ্রেস এর মধ্যে এটি একটি দ্রুতগামী বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন ।

বাংলাদেশের ট্রেনে ভয়াবহ আগুন মৃত্যু বেশ কয়েকজনের Traveling by train feels good and wonderful 8january 2023

ঘটনাটি গত 5ই জানুয়ারি 2024 শুক্রবারের । নতুন বছরের শুরুতেই মর্মান্তিক ঘটনা । যা সকল ধরনের মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে ।ট্রেনটি যখন গোপীবাগ এলাকায় আর কিছুক্ষণ পরেই কমলাপুর স্টেশনে প্রবেশ করবে আর ঠিক তখনই আগুন ধরে যায় ট্রেনের তিনটি কামড়ায় । যাত্রীদের আগুন দৃষ্টিগোচর হতেই যাত্রীদের মধ্যে হুড়োহুড়ি লেগে যায় । বাইরে বেড়ানোর জন্য কেউ জানালার কাঁচ ভাঙতে যাচ্ছে আবার কেউ দরজা ভাঙতে যাচ্ছে। আবার কেউ বাইরে লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা করছে ।জন্ম মত্যু বিবাহ এই তিনটি জিনিস আল্লাহ রব্বুল আলামীনের হাতে । আল্লাহ আলিমুল গায়েব । তাই একজন মানুষ কোথায় কি ভাবে জন্ম হবে,কার সাথে বিবাহ হবে,আর কবে কোথায় কি ভাবে মরবে সবই আল্লাহ জানেন ।

by google image

হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ভর্তি ট্রেনের একজন যাত্রী ইকবাল হোসেন খান এই ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে নিজে প্রথমে কেঁদেই ভাসালেন । পরে নিজেকে সামলে নিয়ে তিনি বলেন, কি ভাবে বলবো এই মর্মান্তিক ঘটনার কথা । তিনি বললেন আমরা ট্রেনের মধ্যে আগুন দেখতে পাই । আগুন দেখে ভয়ে সবাই আঁতকে উঠে । ট্রেন এত দ্রুত গতিতে চলছিল যে আগুন 1 মিনিটের মধ্যে গোটা কামড়ায় ছড়িয়ে পড়ে । আমরা কি করবো কিছুই বুঝতে পারেনি । সবাই ট্রেন থেকে বাইরে বেড়ানোর চেষ্টা করছিল । বাংলাদেশের ট্রেনে ভয়াবহ আগুন মৃত্যু বেশ কয়েকজনের Traveling by train feels good and wonderful 8january 2023

কেউ জানালার কাজ ভাঙার চেষ্টা করছিল কেউ দরজা ভাঙার চেষ্টা করছিল কেউ বা লাফ দিয়ে বাইরে পড়ার চেষ্টা করছিল আমরা যে কামরায় ছিলাম তার সামনের কামরা ছিল এসি কামরা । এসি আমরা দরজা বন্ধ ছিল । এসি কামরার দরজা বন্ধ না থাকলে হয়তো আমরা অন্য কামরায় গিয়ে বাঁচতে পারতাম । ট্রেন দাঁড় করানোর কোন কিছুই আমরা খুঁজে পাইনি । এবং এমন কোন গাড বা কেউ ছিলনা যে তাকে আমরা ট্রেন থামানোর কথা বলব । এই আগুন লাগা অবস্থাতেই ট্রেনটি প্রায় পাঁচ ছয় মিনিট ধরে চলছিল। ট্রেনটির মধ্যে এত ভয়ংকর অবস্থার তৈরি হয়েছিল যে তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো ছিল না ।

by google image

আমরা যে কামরায় ছিলাম সে কামড়াতে প্রায় ৩০-৪০ জন যাত্রী ছিল । ট্রেনে হঠাত আগুন ধরে যাওয়াতে এই কামরার মধ্যে হলুস্থুল কান্ড তৈরি হয় ও মানুষ কামরার মধ্যেই ছোটা ছুটি করতে শুরু করে । একসঙ্গে সবাই বাঁচার চেষ্টা করছিল । দরজার কাছে এত ভিড় ছিল যে কেউ বাইরে বেরোতে পারছিল না । কারো অর্ধেক শরীর পুড়ে গিয়েছে, কারো হাত,কারো পা,কারো হয়তো সম্পূর্ণ শরীর পুড়ে গিয়েছে ।

কেউ হয়তো বাইরে বেরানোর সুযোগ পেলেও সে বাইরে বেরাইনি কারন সে বাইরে বেরিয়ে কি করবে তার যে আপনজনরা ভিতরেই পড়ে আছে । আবার কোন ব্যক্তি অর্ধেক পোড়া অবস্থায় বাইরে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করেছে । কিন্তু পারেনি এত পুড়ে গিয়েছিল যে সেখানেই মৃত্যুবরণ করেছে । যেখানে ট্রেন এসে দাঁড়িয়েছিল সেখানে শুধুই পোড়া লাশের স্তূপ আর পোড়া গন্ধ ।

by google image

ট্রেনে আগুন কিভাবে লাগল এখনো কেউ কিছুই বলতে পারেনি । যারা আগুনে পুড়ে মৃত্যুবরণ করেছে তারা এমন ভাবে পুড়ে গিয়েছিল যে তাদেরকে সনাক্ত করা কিংবা চেনা খুবই মুশকিল হয়ে । পরিবারের আপনজনেরা এসেও এদেরকে শনাক্ত করতে পারছে না । এখন এদের কে শনাক্ত করার শেষ সম্বল হলো ডি এন এ টেস্ট করা । পরিবারের সবাই এসে লাশ খুঁজে না পেয়ে শুধুই কেঁদে চলেছে। পরিবারের আপনজন বেঁচে আছে না মারা গিয়েছে তা তারা কিছুই বুঝতে পারছে না । আর যারা বেঁচে আছে তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক । তাদের বেশির ভাগই শ্বাসনালী পুড়েছে । তাই তারা কোন কথা বলতে পারছে না । সব নিয়ে এক মর্মান্তিক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ।

by google image

মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে । হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে শুধুই হাহাকার আর কান্না । নতুন বছরের শুরুতেই এই মর্মান্তিক ঘটনায় সবাই দিশেহারা । বাংলাদেশের তথা বিশ্বের ইতিহাসে এ এক হৃদয়বিদারক ঘটনা । যা প্রতিটি মানুষকে কাঁদিয়েছে । কেউ না কেউ তার আপনজনকে হারিয়েছে এই ঘটনায় । কোনো মা তার সন্তানকে হারিয়েছে । আবার কোনো সন্তান তার মাকে হারিয়েছি ।

পরিশেষে

পরিশেষে একটি কথায় বলবো কেউ যদি ইচ্ছা করে এই আগুন লাগিয়ে থাকে তাহলে সে অবশ্যই মারাত্মক ভুল কাজ করেছে । আর কিছু ভুলের কোন ক্ষমা নেই । ডাইরেক্ট আগুনে পুড়িয়ে মারতে হবে ।আপনজন কে হারানোর কি কষ্ট যে হারিয়েছে একমাত্র সেই যানে।।

Read More>>>>>

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *