" crossorigin="anonymous"> রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো the great time is lost 16 December 2023 good - Sukher Disha...,

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো the great time is lost 16 December 2023 good

নিজের আত্মীয়-স্বজন বন্ধুবান্ধব ও সবথেকে কাছের নিজের বউ ও ছেলেমেয়ে নিয়ে আনন্দ খুশিতে থাকতে চায় সবাই । সংসারে সবাই একসঙ্গে হাসিখুশি থাকবে এটাই তো সব সংসারের আসল আনন্দ । কিন্তু রাগ এমন একটা জিনিস যেটা সবকিছুকে ধ্বংস করে দেয় ।

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো the great time is lost 16 December 2023 the

by google image

অসম্ভব একটা ঝাঁকুনিতে যেন মুখ ভাঙলো জমসেদের, যেমন চলন্ত দূরপাল্লার ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে সেরকম । তবে এটা ছিল স্বপ্ন একটু সামাল দিয়েই দেখে সত্যিই আগুন, দূরে চেঁচামেচি হচ্ছে । লোকজন সব ছুটোছুটি করছে । সবাই আগুন নেভানোর কাজে ব্যস্ত । রাত তখন ঠিক দুটো । সুখের ঘুম ঘুম চোখে উঠে দাঁড়ালো । কিছুটা দূরে দেখলো তার দোকানটা কে যেন দীপাবলির আগুনের মতো সাজিয়ে দিয়েছে।

কিছু লোক পানি দিয়ে সেই আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে । যতবারই চেষ্টা করছে ততবারই ব্যর্থ হচ্ছে ।
সেই রাতে আগুন নষ্ট করেছিল জমসেদের প্রায় ১৬ লাখ টাকার মাছের খাবার । তার সমস্ত স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে গেল । দোকান ভষ্মিভূত হওয়ার সাথেই, অশীভূত হয়ে গেল তার গোছানো সংসার ও । কিন্তু সংসার ভাঙা প্রায় বছর দুয়েক হয়ে গেলো । কত গোছানো ছিল তার সংসার । সংসারে সবার হাসি খুশিতেই দিন কাটতো । রাতের বাকি সময়টুকু সে আর ঘুমায়নি এসব কথা ভাবতে ভাবতে সকাল হয়ে যায় ।

by google image

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো the great time is lost 16 December 2023

আবার ঠিক তিনদিন পরে জমশেদ ঘুমের মধ্যেই আগুন আগুন বলে চেঁচিয়ে ওঠে । আগুনের লেলিহান শিখা তার বুক ঝাঁঝরা করে দেয় । হাউ মাউ করে কাঁদতে থাকে জমসেদ । তার কান্নার আওয়াজ শুনে জমশেদের মার ঘুম ভেঙে যায় । জমশেদের ঘরে এসে বলে, কি হলো রে বাবা, জমশেদ এত রাতে কাঁদছিস কেন । জামশেদ বলে মা আগুন আগুন আবার আগুন । আমাকে এই আগুন বাঁচতে দেবে না । মা বললো ও স্বপ্ন দেখছিস । ওর মা বলল এসব ভুলে যা আর ঘুমিয়ে পড় এখন অনেক রাত বাকি সকাল হতে ।


পারুলা অর্থাৎ জমসেদের নতুন বউ এর ফোনে ঘুম ভাঙলো সকালে, অনেক রাতে একবার ফোন এসেছিল, কিন্তু তখন সে রিসিভ করতে পারেনি ভয়ে, স্বপ্ন আর বাস্তবের মাঝামাঝি সময়ে এই দেড় বছর পরে পারুলা তাকে প্রথম ফোন করল, প্রথমে তার ফোনটা রিং বাজতে বাজতে কেটে ছোট গেল, এভাবে তিনবারের বেলায় সে ফোনটা রিসিভ করল ।

by google image

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো


পারুলা বললো তুমি ফোন তুলছো না কেন ।
জামশেদ বলল ফোন তোলার মতো অবস্থায় তুমি রেখেছো ?
পারুলা বললো তোমার মেয়ে খুব অসুস্থ
সুখেন বলল কেন কি হয়েছে ?


পারুলা বলল ৬-৭ দিন থেকে জ্বর আর মাথা যন্ত্রণা । জ্বরটা কমলেও কোনভাবেই মাথা যন্ত্রণা কমছে না । আর বারবার তোমার কথা বলছে।
জামশেদ কাঁদো কাঁদো অবস্থায় বলল মেয়ে কোথায় ।
পারুলা মেয়েকে ফোন দিল ।


জামশেদ মেয়েকে বলল মা আমি তোমার বাবা বলছি , তোমার কিচ্ছু হবে না আমি এখনই আসছি ।
মেয়ে বললো বাবা আসার সময় একটা ক্যাটবেরি আনবে । জানো বাবা আমি অনেকদিন কোন ক্যাটবেরি খাইনি ।
জামশেদ বলল হ্যাঁ মামনি তুমি ফোন রাখ আমি আসার সময় ক্যটবেরি নিয়ে আসবো ।


প্রায় দুই বছর হতে চলল জমশেদের আগের স্ত্রী পারুলা চলে যায় মেয়েকে নিয়ে । পারুলা খুব ভালো মেয়ে ছিল । তাই সে খুব অল্প কথাতেই রেগে যেত । সে আমাকেও খুব ভালোবাসতো । আর আমার মেয়ের ওর চোখের মনি ছিল । কিন্তু কি করতে কি হয়ে গেল একদিন রাগারাগি করে ও চলে যায় বাপের বাড়ি মেয়েকে নিয়ে ।

বেশ বেশ কয়েকবার আনতে গেলেও সে আর ফিরে আসেনী । তারপর থেকে জামশেদ একা । হয়তো পারুলা অন্য স্বামীর সঙ্গে বেশ ভালোই আছে মনে মনে ভাবে এই কথা জমশেদ । আর এদিকে একাকীত্ব জীবন জমশেদকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে । মেয়ের এই কথা শুনে সে আরো চিন্তায় পড়ে গেল । কিন্তু কি আর করা যাবে? মেয়ে তো তার নিজের তাই ইচ্ছা না থাকলেও যেতে হবে । সে বেরিয়ে পড়লো ।

by google image

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো


জমশেদ ও তার মেয়ে আর জমসেদের আগের স্ত্রী একসঙ্গে গিয়ে ট্রেনে উঠে বসলো । এই দু বছরে পারুলার অনেক পরিবর্তন হয়েছে, বলা যায় উন্নতিই হয়েছে অনেক। আগেকার থেকে একটু স্বাস্থ্য ভালো হয়েছে । দেখতেও সুন্দরী মনে হচ্ছে। অন্য স্বামীর সাথে বেশ সুখেই আছে সে মনে হয় ।
ট্রেনের জানালার ধারে বসে আছে পারুলা । দেখে অনেক সুন্দর লাগছে। এক্সপ্রেস ট্রেন চেন্নাই এক্সপ্রেস চলেছে তার নিজস্ব দুরন্ত গতিতে হুইসেল বাজিয়ে। দুজনের রিজার্ভের দুটি সিট পাশাপাশি বসে আছে । পারুলা আর জামশেদ যদিও তাদের মধ্যে আর কোন সম্পর্ক নেই ।

পারুলা জামশেদের সুখ-দুঃখের ভাগী হয়েও সে পরনারী অথচ তারা একই কামরায় একই সিটেই পাশাপাশি বসে আছে । পারলে জামশেদ অন্য সিটে বসতে পারতো কিন্তু তার নয়নের একমাত্র মনি তার মেয়ে যে আজ অসুস্থ । মেয়েকে সঙ্গে এবং কাছে করে নিয়ে যেতেই তার যে অনেক তৃপ্তি লাগবে । কিন্তু মেয়ে তো আর ওর মাকে ছাড়া থাকবে না । প্রায় ৫০ ঘণ্টার মধ্যেই পৌঁছে গেল তাদের গন্তব্যস্থলে । তারা গিয়ে পৌঁছালো সেই চেন্নাই মেডিকেল কলেজে । ডাক্তার দেখালো অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর ডাক্তার জামশেদকে ডেকে বলল পরিস্থিতি খুব খারাপ । আপনার মেয়ের ব্রেন টিউমার হয়েছে ।রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো the great time is lost 16 December 2023 good


কথাটি শুনে জামশেদ খুব চিন্তায় পড়ে গেল । সে কি করবে কিছুই বুঝতে পারল না । জামশেদ এইসব চিন্তা করতে করতে তার দুদিন ভাত খাওয়া হয়নি । শেষমেষ মেয়ের অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হলো । এবং একদিন পরেই মেয়ের অপারেশন করানো হলো । মেয়ের মাথায় 53 টা সেলাই করা হলো । মেয়ের মাথার তীব্র যন্ত্রণা ও মেয়ের অসুস্থতা একদিকে জামশেদকে কুরে কুরে খাচ্ছে ঘুনপোকাই আর অন্যদিকে নিজের বউকে দুঃখের দিনে কাছে পেয়েও পর পুরুষের মতো তাকে থাকতে হচ্ছে আলাদা ।


এর মধ্যে প্রায় এক সপ্তাহ কেটে গেল । মেয়ে এখন বেশ প্রায় সুস্থ । তাই তারা বাড়ি ফিরে এলো । জামশেদ এখন প্রায় বেশ খুশি । 2/3 সপ্তাহ পরে মেয়ের আবার পরীক্ষা করানো হলো কিন্তু পরীক্ষার রিপোর্ট একটু খারাপ থাকায় তাকে আবার চেন্নাই যেতে হল ।

by google image

রাগ সংসার ধ্বংসের মূল কারণ কিন্তু কিভাবে গল্পের মাধ্যমে দেখবো


জামশেদ এখন তার মেয়েকে নিয়ে খুবই সুখে আছে । বাবা আর মেয়ে তে আনন্দই কেটে যায় । মেয়ে আর তার মায়ের কথা বলে না । মায়ের কাছে যেতেও চায়না । কিন্তু জামশেদ যে কথাটি ভেবেছিল যে পারুলার হয়তো বিয়ে হয়ে গিয়েছে সেটি কিন্তু ভুল । এভাবে বছর দুই তিনেক হয়ে গেল পারুলা বিবি তার নতুন স্বামী যোগাড় করতে পারেনি । এর জন্য পারলা দেবীর মন খুব খারাপ , বছরের পর বছর চলে যায় পারুলা দেবী একদম একা হয়ে যাই ।


এদিকে জামশেদের মেয়ে জমশেদের কাছেই থেকে যায় । এখন বেশ বড় হয়ে গেছে এবং বিয়ের বয়স হয়ে গিয়েছে । সামনে মাসেই মেয়ের বিয়ে তাই জামশেদ এখন বেশ ব্যস্ত । এদিকে জামশেদ আবার নতুন বিয়ে করেছে । কি করবে পারুলার আশায় আর কতদিন থাকবে। তাই সে বিয়ে করে ফেলেছে । আবার মনে মনে ভাবে পারুলা যদি ফিরে আসে তাহলে দুই স্ত্রীকে একসঙ্গে নিয়ে সে ঘর সংসার করার কথা ।

মাঝে মাঝে ভাবে সে পারুলাকে তার মনের কথাটা জানাবে । কিন্তু পারুলা যদি না করে । এখনো আগের মতোই সে তার পারুলাকে ভালোবাসে । জমশেদের মনে পারুলার ফাঁকা জায়গাটা জমসাদের নতুন স্ত্রী এস পূর্ণ করতে পারেনি । তাই ভয়ে ভয়ে পারুলকে একটা ফোন করে । এবং তার মনের কথাটা সে পারুলাকে জানাই ও তার মেয়ের বিয়ের কথাটাও তাকে জানাই । কিন্তু পারুলা কিছুতেই এ সম্পর্কে কিছু বলেনি । আবার আসবো না একথাও বলেনি । শুধুই বলেছে মেয়ের বিয়ের দিন আসুক দেখা যাবে ।

by google image

এইভাবে মেয়ের বিয়ের দিন উপস্থিত হয়ে গেল । বেশ ধুমধাম বাড়িতে । আত্মীয়-স্বজন সবাই এসেছে । এইভাবে দুপুরের পর পরই মেয়ের জামাই সমেত বরযাত্রী এসে উপস্থিত । এই বরযাত্রীর সঙ্গে একজন এসেছে নতুন অতিথি যদিও সে এই বাড়ীর জন্য নতুন নয় । সে হলো পারুলা বিবি । জমশেদের মনের সেই খালি জায়গাটা পূরণ করতে এসেছে সে ।
কিন্তু শেষ বেলায় একটা কথা বলতেই হব ছেলেদের থেকে মেয়েদের রাগ তুলনামূলক বেশি । এই রাগ বেশি থাকার জন্য সংসার ভেঙে যাচ্ছে অহরহ । স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাচ্ছে । এই গল্পে যেমন পারলা বিবি রাগ করে তার বাপের বাড়ি চলে যায় ।

এই চলে যাওয়াতে তার জীবনের মূল্যবান কিছু সময় অতিবাহিত হয়ে যায় । জামশেদ অনেক কিছু ভাবতে ভাবতে একাকীত্ব জীবন কাটিয়েছে অনেক দিন । এই ভাবনা জমশেদের জীবন দুর্বিষহ করে তুলেছিল । হয়তো এই কারণেই জমসেদের ১৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়ে যায় । আবার জামশেদ ও পারুলার মেয়ের মাথার টিউমার হয়তো বাবার কথা চিন্তা করতে করতেই হয়েছে ।

পারুলার এই চলে যাওয়াতে তিনটি বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে গেল প্রথম কি হল জমশেদের ১৬ লাখ টাকা মাছের খাবার নষ্ট হল । দ্বিতীয়টি হল মেয়ের ব্রেন টিউমার । তৃতীয় টি হল পারুলা বিবির কিছু মূল্যবান সময় । পাগলা বেবি না চলে গেলে হয়তো এই ক্ষতি গুলো হতো না । তাই বলবো মেয়েদের রাগ কমানো উচিত । না হলে আবারো প্রতিটি ঘরে ঘরে এই সমস্যার দেখা দিবে এবং নিজের অজান্তেই অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যাবে । তাই সাবধান হোন রাগ কমান ।

Read More>>>>>>>>

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *