" crossorigin="anonymous"> জলের অপর নাম জীবন তার দূষণ ও প্রতিরোধ Water is a good great thing 2023 - Sukher Disha...,

জলের অপর নাম জীবন তার দূষণ ও প্রতিরোধ Water is a good great thing 2023

নদীমাতৃক আমাদের এই দেশে আমরা মাতৃজ্ঞানে গঙ্গা নদীকে পূজা করি। গত কয়েক দশকে গঙ্গা নদীর দুই তীরে অসংখ্য কলকারখানা শহর নগর জনবসতি গড়ে ওঠার ফলে প্রচুর বিষাক্ত আবর্জনা এই নদীর জলে মিশে জলকে দূষিত করছে ।

জলের অপর নাম জীবন তার দূষণ ও প্রতিরোধ Water is a good great thing 2023

ইতিমধ্যে আফ্রিকা পশ্চিম এশিয়ার অস্ট্রেলিয়া দক্ষিণ আমেরিকার কিছু অঞ্চল চরম জলসঙ্কট দেখা গেছে ।

জল সংকটের প্রধান কারণ গুলি হল

1) অত্যাধিক ভৌত জলের ব্যবহার ।
2) পাম্পের সাহায্যে প্রচুর পরিমাণে জল তোলা ।
3) কলকারখানা ও কৃষি ক্ষেত্রে মাত্রাতিরুক্ত জলের ব্যবহার ।

water pollution by google image


4) কলকারখানা ও নগরের বর্জ্য পদার্থ নদী সমুদ্রে মিশে বাড়ছে জল দূষণ ।
5) রাসায়নিক কীটনাশক মিশে জল হয়ে উঠছে দূষিত।


6) গ্রামের নদী গুলোতে নোংরা আবর্জনার ফেলার কারণে নদীগুলো ভরাট হয়ে যাচ্ছে এর ফলে জল ধরে রাখার ক্ষমতা হারিয়ে যাচ্ছে ।
7) অতিরিক্ত বনভূমি ছেদন করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে বৃষ্টি না হওয়ার কারনে জলের সংকট দেখা দিচ্ছে । এভাবেই প্রতি বছরই বিভিন্ন কারণে একটু একটু করে জলের সংকট দেখা দিচ্ছে।

বর্তমানে পৃথিবীতে শতকরা শতকরা 20জন জন লোক পানীয় জল থেকে বঞ্চিত । পৃথিবীর সমস্ত প্রাণী ও উদ্ভিদের প্রাণ রক্ষার জন্য ত্রাণকর্তা জল । জল ভিত্তিক সভ্যতা প্রগতিহাসিক যুগ থেকে চলে আসছে। যার সুনিশ্চিত ব্যবহার জরুরী । জল সম্পর্কে উঠবে বৈজ্ঞানিক তথ্য অনুযায়ী পৃথিবীর সমস্ত দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি জল সংকট পড়বে ভারত । গবেষণা করে দেখা গেছে যে ২০২৫ থেকে ভারত এবং ২০৩০ সাল থেকে সমস্ত পৃথিবীর জল সংকটে ভুগবে ।
পৃথিবীতে টিকে থাকার জন্য আমাদের এখনই জল সংকট নিরসনের কাজে আত্মনিয়োগ করতে হবে এক্ষেত্রে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা যেতে পারে

1) বিনা কারণে ভৌম জলের অপচয় রোধ করতে হবে ।
2) জলাশয় বা নদীতে কোনরকম আবর্জনা ফেলা যাবে না ।
3) গবাদি পশুকে জলে স্নান করানো যাবে না ।
4) বিনা কারণে ট্যাপকল চালু রাখা যাবে না ।
5) বিভিন্ন কারণে জলের অপচয় বন্ধ করতে হবে ।
6) অতিরিক্ত মোটর পাম্প দ্বারা জল তোলা বন্ধ করতে হবে ।
7) এছাড়া অতিরিক্তভাবে বৃক্ষ ছেদন বা গাছ কাটা যাবে না ।
8) নতুন করে প্রচুর পরিমাণে বৃক্ষরোপণ করতে হবে ।


9) পুরানো জলাশয় নদী নালা কে খনন করতে হবে ।


10) বিভিন্ন উপায়ে বৃষ্টির জল ধরে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে ।

11) বিভিন্ন ফ্যাক্টরি ও কল কারখানার আবর্জনা ও বর্জ্য পদার্থ সমুদ্রে বা নদী নালা ফেলা যাবে না ।

12)বাড়ির ছাদের নিচে জলাধার বানিয়েও বৃষ্টির জল ধরে রাখা যেতে পারে এভাবে অনেক জল সংরক্ষণ সম্ভব ।
তাই আর অবহেলা নয় এখনো যদি আমরা সতর্ক না হই তবে ভবিষ্যতে বিরাট বিরাট জাহাজ পাঠাতে হবে মেরু প্রদেশে বরফ আনার জন্য । দাঁত থাকতে আমরা যেমন দাঁতের মর্যাদা বুঝিনা তেমনি জল থাকতে জলের মর্ম বুঝতে পারছি না । জীবনের সংকট মেটায় যে জল সে জলই এখন সংকটে । তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ যদি কখনো বাঁধে তা জমি বা এলাকার দখল নিয়ে নয় জল সম্পদের অধিকার নিয়ে বাঁধবে। তাই ভারতবাসী সাবধান হন ।

এরকমই শুধু গঙ্গা নদী না দেশের প্রত্যেকটা নদী এভাবে দূষিত হচ্ছে ।পৃথিবীর সৃষ্টির আদিতে সম্পূর্ণ গ্রহ ছিল জলাময় । তারপর স্থলভাগ একাংশ দখল করলেও তিন ভাগ জলেরই রয়ে গেছে। কিন্তু আজ কালের করাল গ্রাসে পৃথিবীতে দেখা দিচ্ছে জলের তীব্র সংকট । নাগরিক সভ্যতার লোভ লালসায় জলমায় পৃথিবী হতে চলেছে তপ্ত মরুভূমি । অদ্ভুত এক আধার আজ পৃথিবীতে গ্রাস করেছে। অত্যাধিক হারে মানুষ বৃদ্ধি এবং ভৌম জলের অতিরিক্ত ব্যবহার আজ বিশ্বজুড়ে সৃষ্টি করেছে তীব্র জলসঙ্কট

Read More>>>>>>>

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *